বরিশালে পলাশপুরে রাতের আধাঁরে গৃহবধূর বসতঘরে আগুন! এই বৃষ্টি দিন ! প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক মোঃ শামীম বিশ্বাস বরিশাল জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদার আবেগঘন ঈদ শুভেচ্ছা বার্তা পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করে এগিয়ে যাচ্ছেন আ-নেতা তৌহিদুল ইসলাম বাকেরগঞ্জে অসহায় মানুষের পাশে মোঃ শামীম বিশ্বাস বরিশালে সরকারি নির্দেশ অমান্য করায় ক্রেতা -বিক্রেতাকে জরিমানা পশ্চিম গগনে বাঁকা চাঁদ দেখলেই পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ অসহায় কর্মহীনদের পাশে দাড়িয়ে নজর কেড়েছে ছাত্রলীগ নেতা রাসেল

ছাত্রলীগ নেতাকে হত্যাচেষ্টায় উত্তপ্ত ববি ক্যাম্পাস

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর ও ধারালো অস্ত্রের দ্বারা কোপানোর ঘটনা ঘটেছে। রোববার (৮ডিসেম্বর) রাত ৯টা ১৫ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী ভোলার রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার শিক্ষার্থীর মতে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের লোকেরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রফিক হাওলাদারকে চিহ্নিত করতে পেরেছে আহতরা।সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্যমতে গুরুতর আহত অবস্থায় আহমেদ সিফাতকে হসপিটালে ভর্তি করানো হয়েছে। এদিকে এই হামলার প্রতিবাদে রাতে ক্যাম্পাসে ঝাটিকা মিছিল করেছে সিফাত সমর্থক ছাত্রলীগ কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গণিত বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের শিক্ষার্থী আহমেদ সিফাত ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ২০১২-১৩ সেশনের আলীম সালেহী ভোলার রাস্তায় আড্ডা দিচ্ছিলো। হঠাৎ তিনজন যুবক এসে আহমেদ সিফাতকে এলোপাথাড়ি আঘাত শুরু করে। তখন সঙ্গে থাকা আলীম সালেহী প্রতিবাদ করতে গেলে তাকেও আঘাত করা হয়।হামলার একপর্যায়ে বহিরাগত একজন ধারালো ক্ষুর দিয়ে উপর্যুপরি কোপানো শুরু করে। পরবর্তীতে আশেপাশের লোকজন এসে সিফাতকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের মাধ্যমে শেরে বাংলা মেডিকেলে নিয়ে যায়।

হামলায় আহতের মধ্যে আলীম সালেহী জানান, সাবেক ভিসি বিরোধী আন্দোলনের পর থেকে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহবায়ক আল-আমীন সহ শিবির এবং বামদলের কর্মীদের নিয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু করে ইমন-জিসান। সিফাত শুরু থেকেই এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছিল। আজ (রোববার) মহানগর আওয়ামীলীগের সম্মেলনে যোগদান করতে যাবার সময় এইসব মুজিব আদর্শের বিরোধীদের ব্যানারের সামনে দাঁড় করানোর চেষ্টা করে লোকপ্রশাসন বিভাগের আশরাফুল হোসেন ইমন ও সৈয়দ জিসান। তখন এর প্রতিবাদ করা হলে সিফাতকে দেখে নেবার হুমকি দেয় তারা।সেই রাগ থেকেই আল আমীন, ইমন ও জিসানের মদদে রাতে সিফাতের ওপর পরিকল্পিত হামলা চালানো হয়েছে।

মুজিববর্ষ