বরিশালে পলাশপুরে রাতের আধাঁরে গৃহবধূর বসতঘরে আগুন! এই বৃষ্টি দিন ! প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক মোঃ শামীম বিশ্বাস বরিশাল জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদার আবেগঘন ঈদ শুভেচ্ছা বার্তা পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করে এগিয়ে যাচ্ছেন আ-নেতা তৌহিদুল ইসলাম বাকেরগঞ্জে অসহায় মানুষের পাশে মোঃ শামীম বিশ্বাস বরিশালে সরকারি নির্দেশ অমান্য করায় ক্রেতা -বিক্রেতাকে জরিমানা পশ্চিম গগনে বাঁকা চাঁদ দেখলেই পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ অসহায় কর্মহীনদের পাশে দাড়িয়ে নজর কেড়েছে ছাত্রলীগ নেতা রাসেল

নলছিটিতে প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতির মামলাসহ বহু অভিযোগ!

 

মু: মনিরুজ্জামান মুনির,সিনিয়র ষ্টাফ রিপোর্টার:- সভাপতির স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে ৪৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্নসাতের অভিযোগে ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার ৫৫ নং মালোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানী গোস্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। গত ২২ অক্টোবর ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি মো: আমিরুল ইসলাম রাজিব বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে পিবিআই,বরিশালকে আগামী ২৪ নভেম্বরের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানী গোস্বামী সভাপতি আমিরুল ইসলাম রাজিবের স্বাক্ষর জাল করে গত ২৬ আগষ্ট কৃষি ব্যাংক নলছিটি শাখার হিসাব নং-০৪০৪-০৩১০১৬৬১৯৫ থেকে ৪৫ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। বিষয়টি অবহিত হয়ে বিদ্যালয়ের সভাপতি শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের লিখিতভাবে অবহিত করেন।এবং আদালতে মামলা দায়ের করেন, যার নং-৪৬২, তারিখ-২২/১০/১৯।
ওই মলিনা রানী সহকারী শিক্ষক হিসেবে নলছিটির পুরানবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাকুরী করাকালীন তার অন্যায়-অনিয়ম ও দুর্বব্যবহারের কারনে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক,সহকারী সকল শিক্ষক ও বিদ্যালয়ের কমিটি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট দু’দফায় অভিযোগ দায়ের করেন। এক বছর পূর্বে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব নিয়ে ৫৫ নং মালোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। ওই বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকে প্রায়ই বিদ্যালয়ে আসেন না, সহকারী শিক্ষকদের দুর্বব্যবহার করেন, কমিটির সভাপতির সাথেও দুর্বব্যবহার এবং অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ ওঠে। বিগত ২৫ অাগষ্ট সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষরে ৪৫ হাজার টাকা কমিটির রেজুলেশন ও সিদ্বান্তক্রমে উত্তোলন করা হয়। পরদিন ২৬ আগষ্ট গোপনে সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে ৪৫ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। যা কয়েকদিন পরে প্রকাশ হয়ে পড়ে।

প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানীর দুর্বব্যবহারে অতিষ্ঠ হয়ে তার অপসারণ দাবীতে ওই বিদ্যালয়ের সকল সহকারী শিক্ষকরা গত ২০ অক্টোবর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ওই বিদ্যালয়ের কমিটির নেতৃবৃন্দ ও অভিভাবকরা তার অপসারণ ও শাস্তি দাবী করে শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের নিকট অভিযোগ দায়ের করেন। এছাড়াও সিদ্ধকাঠী ক্লাষ্টারের ৬টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা মলিনা রানী গোস্বামীর বিরুদ্ধে অর্থ আত্নসাত, দুর্বব্যবহার ও অসদাচরণের অভিযোগ আনয়ন করলে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দুইজন সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। তদন্তে ওই প্রধান শিক্ষকের অর্থ আত্নসাত,দুর্বব্যবহার,অসদাচরণ ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ প্রমাণিত হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তারা প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানীর সাময়িক বরখাস্তসহ শাস্তির সুপারিশ করেন। এর প্রেক্ষিতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বিষয়টি ঝালকাঠি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে চিঠি দিয়ে অবহিত করেন। এদিকে ওই প্রধান শিক্ষকা মলিনা রানী উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আরজুদা বেগমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছেন। অর্থ আত্নসাতসহ বিভিন্ন অভিযোগ মিথ্যা-ভিত্তিহীন দাবী করে মলিনা রানী বিষয়টি প্রকাশ না করতে এই প্রতিবেদককে অনুরোধ করেন।

মুজিববর্ষ