চাঁদপাশায় পূর্বের শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ আহত – ৩ চরফ্যাসনে ইমামকে মারধরের অভিযোগে ফিরোজ হাজী আটক অসহায় নারীকে নির্যাতনের অভিযোগে ঝালকাঠির চপলেরের বিরুদ্ধে মামলা ! বরিশালে নগরীতে আ’লীগ নেতার ভবনে চাকুরীর প্রলোভনে জিম্মি করে দেহব্যবসা ! ডিবির অভিযানে আটক-৩, ২ নারী উদ্ধার প্রধানমন্ত্রীর দেয়া সাংবাদিকদের জন্য প্রনোদনা বরিশালে সুষম বন্টন হওয়া উচিত ছিলো বরিশাল পলাশপুরে পিতা ধর্ষণ করলো মেয়েকে ! মঠবাড়িয়ায় স্বামী স্ত্রী ও সন্তানের রহস্যজনক মৃত্যু, লাশ উদ্ধার পবিত্র ঈদ-উল আযাহা উপলক্ষে ১০নং ওয়ার্ডবাসীকে শুভেচ্ছা জানালেন কাউন্সিলর এটিএম শহিদুল্লাহ কবির ঈদের আনন্দ করতে গিয়ে যেন করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি না পায় এজন্য সবাইকে সর্তক থাকতে হবে, বিএমপি কমিশনার প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

পরিচয় গোপন রেখে মধ্যবিত্তদের সহযোগীতা করা অব্যাহত থাকবে, পুলিশ কমিশনার

জুবায়ের ইসলামঃ করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ইতোমধ্যে মানবসেবক হিসেবে বরিশালবাসীর কাছে পরিচিত হয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার । করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে তার গৃহীত পদক্ষেপগুলো সাড়া ফেলে দিয়েছে সর্বমহলে ।

হাত পেতে চাইতে না পারা মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকে রাতের আঁধারে গোপনে খাবার পৌছে দিয়ে পেয়েছেন হাজার মানুষের ভালোবাসা । এই মানবিক কাজের জন্য প্রশংসিত হয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও মিডিয়া পাড়ায় ।

গত ১৪ই এপ্রিল “যারা হাত পেতে চাইতে পারছে না তাদের গোপনে সহয়তা দেয়া হবে ” শিরোনামে জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বরিশাল নিউজ২৪ ডটকমে একটি সংবাদ প্রকাশ করেন ।

মূহুর্তের মধ্যে সেই সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে দেশে বিদেশের লক্ষ মানুষের কাছে, সংবাদটি প্রায় ১৮ হাজার পাঠক শেয়ার করে। পরদিন সেই সংবাদটি বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ বিএমপির অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে শেয়ার করা হয়। বিএমপি পেইজ থেকে প্রায় ১৪শত মানুষ শেয়ার করলে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে ।

গোপনে সহযোগীতা করা হবে এমন খবর প্রকাশ হওয়ার পর সেই সংবাদে সহায্যের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ চেয়ে মোবাইল নম্বরসহ মন্তব্য করে অনেক মধ্যবিত্ত পরিবার যারা হাত পেতে কারও কাছে চাইতে পারছেনা । এদের মধ্যে মোঃ বাপ্পী ( ছব্দ নাম ) নামের এক সহযোগীতা প্রত্যাশী অন্যতম

বাপ্পীর সহযোগীতার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সাথে সাথে তার দেয়া মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ বিএমপি ।

বিএমপি খোঁজ নিয়ে জানতে পারে বাপ্পীর দেশের বাড়ী লামছড়ি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে গেছে, এরপর আশ্রয় নিয়েছে বরিশাল নগরীর পলাশপুরের একটি ভাড়া বাড়ীতে। বাবা মারা যাওয়ার পরে সংসারের হাল ধরতে চাকুরী নেয় একটি বেসরকারি কোম্পানিতে । মাসিক ১৫হাজার টাকা বেতনের চাকুরী দিয়ে মা ও স্ত্রী সন্তান নিয়ে ভালোই চলছিল।

হঠাৎ মহামারী করোনা ভাইরাসে কারনে বাপ্পীর চাকুরীটা চলে যায় এবং হাতে সামান্য যে পরিমান টাকা জমা ছিল তাও শেষ হয়ে যায় । মায়ের ঔষধ শিশু সন্তানের খাবারসহ পরিবারের ভরনপোষণ করা তার জন্য কঠিন হয়ে পরে । কোন উপায় না পেয়ে বাপ্পী বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অফিসিয়াল ফেসবুক আইডিতে সাহায্যের আবেদন করেন।

বাপ্পীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার এর নির্দেশনায় তার ঘরে খাবার নিয়ে হাজির হয় স্টাফ অফিসার মোঃ আব্দল হালিম (সোহেল ) ও অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা।

পুলিশ ঘরে খাবার নিয়ে এসেছে দেখেই আনন্দে অশ্রুসিক্ত হয়ে পরে বাপ্পী ও তার পরিবার। বিপদের সময় খাবার পেয়ে বিএমপি কমিশনারসহ সকল পুলিশ সদস্যকে ধন্যবাদ জানায় ।

গোপনে সহয়তা করার পাশাপাশি মহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য কাজ করে নগরবাসীর কাছে ইতোমধ্যে প্রশংসার পাত্র হয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার ।

তারই নির্দেশনায় প্রচার প্রচারণার পাশাপাশি মানুষের কল্যানে নিয়োজিত রয়েছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল বিভাগ । নগরবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন মহলে প্রশংসনীয় হয়েছে তার গৃহীত পদক্ষেপগুলো ।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় করনীয় বিষয়গুলো প্রচারণার পাশাপাশি জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নগরীতে ওয়াটার ক্যানন দিয়ে জীবাণু নাশক স্প্রে করাসহ অসহায় মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে হ্যান্ডস্যানিটাইজার, মাস্কসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ।

নগরীতে করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে বন্ধ রাখা হয়েছে যান চলাচল , বরিশালে প্রবেশের মূল সড়কে বসানো হয়েছে বিশেষ চেকপোস্ট । অন্য জেলার যানবাহন ও জনসাধারণের প্রবেশে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা ।

এরই ধারাবাহিকতায় বিএমপি কমিশনারের নির্দেশে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে বরিশাল নগরীর বাজারগুলোকে বাইলেন ও খেলার মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছে । সবাইকে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে বাজার করার জন্য অনুরোধ করেছেন ।

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করতে বাহিরে আসলেও যেন জনসাধারণের শারীরিক দূরত্ব বজায় থাকে সেজন্য সতর্ক করাসহ গ্রহণ করা হয়েছে যথাযথ কিছু পদক্ষেপ ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান  বরিশাল নিউজ২৪কে বলেন, করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া মধ্যেবিত্ত পরিবারগুলোকে পরিচয় গোপন রেখে সহযোগীতা করে যাচ্ছি। আমাদের সাথে যোগাযোগকারীদের যাছাই বাছাই এর মাধ্যমে পরিচয় গোপন রেখে তাদের সহযোগীতা করা অব্যাহত থাকবে । আল্লাহ আমাকে যতদিন পর্যন্ত সুযোগ দিবেন ততদিন মানুষের পাশে থাকবো ।

বিএমপি পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার আরও বলেন সমাজের বিত্তবান ব্যক্তিরা আমাদের সাথে চাল,ডাল,তেল,বাসানসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দিয়ে অসহায় মানুষেকে সহযোগী করতে এগিয়ে আসতে পারে ।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জনসাধারণকে খাবার পৌঁছে দেয়ার কাজে সহযোগীতা করে যাচ্ছেন সহকারী পুলিশ কমিশনার বিএমপি স্টাফ অফিসার মোঃ আব্দুল হালিম ।

কথা হয় সহকারী পুলিশ কমিশনার বিএমপি মোঃ আব্দুল হালিমের সাথে তিনি বলেন, আমাদের কাছে কেউ আবেদন করলে তাৎক্ষণিক তাদের ঘরে খাবার পৌঁছে দিয়ে আসি।

এ পর্যন্ত আমরা প্রায় ৩শত মধ্যবিত্ত পরিবারকে সহযোগীতা করেছি । যারা মানুষের কাছে হাত পেতে চাইতে পারছে না তাদের পরিচয় গোপন রেখে আমরা সহয়তা প্রদান করে যাচ্ছি । দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে ।

এদিকে বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার এর নেতৃত্বে সময়উপযোগী বিভিন্ন সিধান্ত নেয়ার জন্য করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আশার দেখছেন বরিশালবাসী।

মুজিববর্ষ