ঢাকায় থেকেও বরিশালে আসামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী জনপ্রতি ১২ কেজি পেঁয়াজ না নিলে দিচ্ছেন না তেল, চিনি ও ডাল! মুলাদীতে সার্চ,সৌল,সয়েল নামে শিল্পকর্মের উদ্যোগে ৪ দিন ব্যাপী ১০ জন তরুন কোন ঘোষনা ছাড়াই বরিশাল নগরীতে বাস চলাচল বন্ধ রাখলো পরিবহন শ্রমিকরা বরিশালে কলেজ ছাত্রী রিপার লাশ উদ্ধার বরিশালে মসজিদের উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পটুয়াখালীর বাউফলে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে অটোগাড়ি চালকদের থানায় অবস্থান ঝালকাঠিতে ৪১ টি বেইলি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ! পোর্টরোড এলাকা থেকে ২৮৮ বোতল ফেন্সিডিলসহ মাদক বিক্রেতা আটক বরিশালে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী

sarjan faraby

বরিশালে অপরাধীদের আতংকের আরেক নাম ওসি আজিমুল করিম

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল মেট্রোপলিটন এলাকার কাউনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদানের পরে ছোট বড় অপরাধের সাথে জড়িত বিভিন্ন শ্রেনী ও পেশার মানুষ আইনের আওতায় এসেছে। অনেকের বিরুদ্ধেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়ায় অপ-প্রচারের পাশাপাশি ক্ষুদ্ধ মেজাজে ওসি আজিমুল করিমকে ভৎসনা করতে দেখা গেছে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে কাউনিয়া থানায় যোগদানের পরে ঐ এলাকায় ছোট বড় জুয়াড় আসর বন্ধ করে তিনি।

এই জুয়া সিন্ডিকেটের সাথে বেশ কয়েকজন মধ্যম সারির প্রভাবশালীদের সখ্যতা ছিলো। কয়েক শ্রেনীর পেশার মানুষ গোপনে ঐ জুয়াড় আসর থেকে বিট মানি নেয়ার অভিযোগও ছিলো। জুয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঐ ঘরানার সকলেই ওসির প্রতি সংক্ষুদ্ধ হয়েছেন। এছাড়াও মাদক সিন্ডিকেড, চোর সিন্ডিকেডকে প্রশ্রয় না দিয়ে মামলা দেয়ায় ঐ সিন্ডিকেডের লোকেরাও ওসির প্রতি ক্ষুদ্ধ। এছাড়াও সাংবাদিকতার নামে নানান অপরাধ করে বেড়ানো চাঁদাবাজ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে মামলা নেয়ায় ঐ চক্রের নেপথ্যে থাকা কয়েক ব্যক্তি বেজায় ভার হয়েছেন।

ঐ সকল সংক্ষুদ্ধ ব্যক্তিরা ওসি আজিমুলের বিরুদ্ধে ব্যাপক অপ প্রচার ও ভৎসনা করলেও ঐ এলাকার শতকরা ৯০ ভাগ লোক ওসি আজিমুলসহ মেট্রোপলিটন পুলিশের কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করে বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান, উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তর মোঃ খায়রুল আলম ও ওসি আজিমুল করিমসহ মেট্রোপলিটন পুলিশকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। কাউনিয়া থানা এলাকায় অপরাধীদের বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি হওয়ায় অপরাধীরা এবং তাদের নেপথ্যে থাকা সেলটার দাতারা চরম ক্ষুদ্ধ হয়েছেন। ব্যাপক অভিযানে অপরাধীরা পর্র্যুদস্ত হয়ে পরলে নেপথ্যে সেলটার দাতারা বেকায়দায় পরে যায়।

গত ৬ আগষ্ট আনন্দ টিভির বরিশাল প্রতিনিধি মজিবর রহমান নাহিদ ও তার ঘনিষ্ঠ সহচর রনি হাওলাদার স্বরোড এলাকায় এক নারীকে ব্ল্যাক মেইলিং করে চাঁদা আদায় করতে গিয়ে ধরা পরে। কাউনিয়া থানা পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করলে এই চক্রের সদস্যরা ক্ষেপে যায় ওসি আজিমুল করিম এর উপরে। জানা গেছে এই চক্রের অন্যান্য সদস্যরা সাংবাদিকতার অন্তরালে নগরীতে ব্যাপক চাঁদাবাজি করে আসছে। এই চক্রকে আইনের আওতায় আনায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।

মুজিববর্ষ