বরিশালে ৮৪ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বরিশালে স্বাস্থ্যবিধি মনিটরিং করতে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট, বাস ও যাত্রীকে জরিমানা বরিশালে বোরো ধান সংগ্রহ কার্ষক্রম-২০২০ এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত অসুস্থ মোশারফ হোসেনকে মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ’র আর্থিক সহয়তা প্রদান নিষেধাজ্ঞা সত্বেও বরিশালে কিস্তি আদায়ে এনজিও গুলোর চাপ প্রয়োগ বরিশাল লঞ্চঘাটে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার তিনটি লঞ্চ ও ৫জন যাত্রীকে ১৪হাজার টাকা জরিমানা শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি কার্যকর করতে কঠোর অবস্থানে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ বরিশাল পলাশপুরে ড্রেজার মামুনের বিয়ে বানিজ্য! বিয়ে পর অস্বিকার করলেন স্ত্রীকে উজিরপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে যুবতির মৃত্যু, নমুনা সংগ্রহ বরিশালের পুলিশ সুপারসহ ২ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার অভিযোগ!

বরিশালে অপ্রয়োজনে দোকান খোলা জেলা প্রশাসন ও র‌্যাবের অভিযানে ৬হাজার টাকা জরিমানা

জুবায়ের ইসলামঃকরোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ।সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সাড়া দেশের ন্যায় বরিশালেও কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসন

করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে তৎপর রয়েছে জেলা প্রশাসন জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের নির্দেশ অনুযায়ী কাজ করে যাচ্ছে অন্যান্য কর্মকর্তারা ।

জেলা প্রশাসনের নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ১৩ই এপ্রিল রোজ সোমবার সকাল থেকে বরিশাল মহানগরীর চৌমাথা, নতুল্লাবাদ, আমতলার মোড়, সাগরদী, রুপাতলী, নবগ্রাম, আমতলার মোড়, রায়পাশা কড়াপুর এলাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান চলাকালে জনসমাগম করে অপ্রয়োজনীয় কারনে দোকান খোলা রাখার অপরাধে চারটি দোকানকে ৬হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।

নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অধিক মানুষের সমাগম এবং চায়ের দোকানসহ অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রাখা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা পালনের পাশাপাশি গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, অজিয়র রহমানের নির্দেশনায় মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বরিশাল মোঃ নাজমূল হুদা এবং এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলাম ।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে গণসচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি এ সময় বিভিন্ন টি-স্টল, মুদি দোকান ও এলাকার মোড়ে মোড়ে যেখানেই জনসমাগম দেখা গেছে তা ছত্রভঙ্গ করা হয় এবং নিরাপদ দূরত্বে মেনে চলার নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

প্রয়োজনীয় কাজে যারা বের হয়েছে তাদের মাক্স পরার নির্দেশনা প্রদান করা হয় । পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করা হয় এবং এ আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেয় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটগন ।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনার নেতৃত্ব প্রদান করেন বরিশাল জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদা ।

অভিযান চলাকালীন সময় নগরীর বাংলাবাজার এলাকায় অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রেখে জনসমাগম করা ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত না করে আড্ডা দেয়ার অপরাধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ এর ২৫ (১) ধারা মোতাবেক মোঃ রিয়াজ নামের এক ব্যক্তি কে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।

সাগরদী বাজার এলাকায় অপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা রেখে জনসমাগম করার অপরাধে একই আইনে রিপন নামে এক ব্যক্তিকে ২হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।

আমতলা মোড় এলাকায় অপ্রয়োজনে রাস্তায় বের হয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় না মানার অপরাধে একই আইনে আবু সুফিয়ান নামের এক যুবকের ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয় ।

অভিযানে সহযোগীতা করেন প্রসিকিউসন অফিসার হিসাবে স্যানিটারি অফিসার ও নিরাপদ খাদ্য ইন্সপেক্টর মোঃ জাকির হোসেন, এএসপি মুকুর চাকমাসহ র‍্যাব ৮এর অন্যান্য সদস্যরা ।

অপরদিকে বরিশাল মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় আর একটি মোবাইল কোর্টে অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বরিশাল মোঃ সাইফুল ইসলাম।

অভিযানকালে তিনি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে সচেতনতা মূলক প্রচারণা চালানোর পাশাপাশি সবাইকে যৌক্তিক প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করেন।

সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আদেশ অমান্যাকরীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। তিনি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় তিনি নবগ্রাম রোডে রুইয়ার পোল এলাকায় একটি মুদি দোকানের সামনে জনসমাগম করার অপরাধে দোকান মালিককে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

অপ্রয়োজনে বাহিরে বের না হয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার এই অভিযানে তাকে সহযোগিতা করেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ এর সদস্যরা ।

অভিযান শেষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদ্বয় সাংবাদিকদের বলেন, জনগণকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করার জন্য জেলা প্রশাসক জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব এস, এম, অজিয়র রহমান সদা সচেষ্ট রয়েছেন ।

জনসাধারণকে নিরাপত্তাদিতে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে তাঁর নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে ।

মুজিববর্ষ