ভোলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, ৪ মাসের অন্তঃসত্তা ববিতে ৯৫ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ ঠেকেছে ১৭৩ কোটিতে ! খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা বরগুনায় থেকে হাত-পা বাঁধা অপহৃত স্কুলছাত্র উদ্ধার এ অঞ্চলের পরিবার পরিকল্পনা সেবার চাহিদা পূরণ হচ্ছে না পিরোজপুরে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার ‘নগ্ন রেস্তোরাঁ’ চালু করছে সুইজারল্যান্ড ব‌রিশালে ল’পরীক্ষায় বহিষ্কার ২৫ বিশ্ববিদ্যালয় কোনো লুটপাটের জায়গা নয় নলছিটিতে ডোবা থেকে নিখোঁজ কিশোরের লাশ উদ্ধার

মঠবিড়িয়ায় বাল্য বিবাহের হিড়িক

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ ১৩ বছরের রুপা আক্তার।স্হানীয় একটি মাদ্রাসার ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী সে।বাবা সৌদি প্রবাসী রিপন গাজী।বিবাহ হয় একই এলাকার আবদুস সাত্তারের ছেলে রিমনের সাথে। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়েই সেরে ফেলে বিবাহের কাজ। তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে অভিভাবকরা শুরু করে তালবাহানা। কখনো বলে বিবাহ হয় নাই,কখনো বিবাহ ঠিক হয়েছে কিন্তু বিবাহ হয় নাই আবার কখনো আমার মেয়ে আমি বিবাহ দেব -যে যা করতে পারে করুক বলে হুমকি।

কচুবাড়িয়া গ্রামের জলিলের মেয়ে মেরিনা।বিবাহ হয় একই গ্রামের ম্যাদা মালেকের ছেলে জসিমের সাথে।স্হানীয় হাই স্কুলের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী মেরিনার স্কুলে যাওয়া এখন অনেকটাই অনিশ্চিত।

পার্শ্ববর্তি ভাইজোড়া গ্রামের সিদ্দিক খলিফার মেয়ে ছাদিয়া। বিবাহ হয়েছে মোড়েলগন্ঞ্জ রায়েন্দার ওপাড়। স্হানীয়রা যাকে বলে পশ্চিম পাড়।ছাদিয়াও স্হানীয় একটি হাই স্কুলের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী। পড়ার টেবিল ছেড়ে এখন শ্বশুর বাড়ির সংসার নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হয় তাকে।

স্হানীয়রা জানান, “বাল্য বিবাহ বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে প্রত্যান্ত অন্ঞ্চলের স্কুল পড়ুয়া মেধাবি মেয়েরাও স্কুল থেকে ঝড়ে পড়ছে।প্রশাসনের সুদৃষ্টি প্রয়োজন।”

Bangabandhu Countdown | Nextzen Limited