1. gazia229@gmail.com : admin :
অহংকার করলে কি হয়: ইসলাম কি বলে ? - BarishalNews24
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন

অহংকার করলে কি হয়: ইসলাম কি বলে ?

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫২ বার দেখা হয়েছে

আবদুর রশিদ :: অহংকার মানব জীবনের এক জঘন্য স্বভাব, যা মানুষের আত্মোপলব্ধিকে ভুলিয়ে দেয়। মানুষ নিজেকে শ্রেষ্ঠ ও অন্যকে হেয় জ্ঞান করতে থাকে। এ জন্য অহংকার করা ইসলামে নিষিদ্ধ।

আল্লাহ বলেন- তুমি পৃথিবীতে অহংকার করে চল না। নিশ্চয়ই তুমি জমিনকে ধ্বংস করতে পারবে না এবং পাহাড়ের উচ্চতায়ও পৌঁছতে পারবে না। (ইসরা ৩৭)।

আল্লাহতায়ালা অন্যত্র বলেন- এটা নিঃসন্দেহ যে, আল্লাহ জানেন যা তারা গোপন করে এবং যা তারা প্রকাশ করে; তিনি অহংকারীকে পছন্দ করেন না। (নাহল ২৩)।
আল্লাহতায়ালা অন্যত্র বলেন- অহংকারবশত তুমি মানুষকে অবজ্ঞা কর না এবং পৃথিবীতে অহংকার করে বিচরণ কর না, কারণ আল্লাহ কোনো অহংকারীকে পছন্দ করেন না। (লুকমান ১৮)।

উপরিউক্ত আয়াতে আল্লাহতায়ালা দাম্ভিক ও অহংকারীকে অপছন্দ করেন বলে ঘোষণা করেছেন। মহান আল্লাহতায়ালা মানুষকে সৃষ্টি করেছেন। এ মানুষের মধ্যে কেউ সাদা, কেউ কালো, কেউ ধনী, কেউ গরিব। মানুষের মাঝে এ ভেদাভেদ আল্লাহই সৃষ্টি করেছেন। আবার সবার রিজিকের ব্যবস্থাও তিনি করেন। মানুষ কেউই স্বয়ংসম্পূর্ণ নয়। কোনো না কোনো কাজে ও প্রয়োজনে তাকে অন্যের সাহায্য নিতে হয়। অপরের মুখাপেক্ষী হতে হয়। কাজেই অহংকার করা মানুষের সাজে না। অহংকারের পরিণতি সম্পর্কে রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কঠিন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

হজরত আবু হুরাইরা (রা.) বলেন, এক ব্যক্তি রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বললেন, আমাকে উপদেশ দিন। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, তুমি রাগ কর না। সে কয়েকবার একই কথা জিজ্ঞেস করল, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্রত্যেকবার একই জবাব দিলেন, তুমি রাগ কর না। (বুখারি, মিশকাত হা/৫১০৪)।

হজরত আবু হুরাইরা (রা.) বলেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : ওই ব্যক্তি শক্তিশালী নয় যে প্রতিপক্ষকে আছাড় দিয়ে ফেলে দিতে পারে। বরং সে ব্যক্তিই প্রকৃত শক্তিশালী, যে রাগের সময় নিজেকে সংযত করে রাখতে পারে। (বুখারি, মুসলিম, মিশকাত হা/৫১০৫)।

হজরত হারিছা ইবনে ওহাব (রা.) বলেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন- আমি কি তোমাদের জান্নাতি লোকের কথা বলব না? তারা হলো সরলতার দরুন দুর্বল, যাদের লোকেরা হীন, তুচ্ছ ও দুর্বল মনে করে। আল্লাহ তাদের এত ভালোবাসেন যে, তারা কোনো বিষয়ে কসম করলে তাদের সত্যে পরিণত করেন। তারপর নবী কারিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, আমি তোমাদের কি জাহান্নামিদের কথা বলব না? তারা হলো, যারা অনর্থক কথা নিয়ে বিবাদ করে, আর যারা বদমেজাজি অহংকারী। (মুসলিম, মিশকাত হা/৫১০৬)।

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) বলেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : যার অন্তরে বিন্দু পরিমাণ অহংকার থাকবে, সে জান্নাতে প্রবেশ করবে না। তখন এক ব্যক্তি বলল, কেউ তো পছন্দ করে যে তার পোশাক ভালো হোক, তার জুতা সুন্দর হোক, এটাও কি অহংকার? তিনি বললেন, আল্লাহ নিজে সুন্দর এবং সুন্দরকে পছন্দ করেন। অহংকার হলো, হককে অহংকার করে পরিত্যাগ করা এবং মানুষকে হীন ও তুচ্ছ মনে করা। (মুসলিম, মিশকাত হা/৫১০৮)।

লেখক : ইসলামবিষয়ক গবেষক।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24