1. gazia229@gmail.com : admin :
আদালতের স্থিতিবস্থতা অমান্য করে গাছ কেটে রাস্তা নির্মাণঃ মেয়রসহ ৪জনকে লিগ্যাল নোটিশ - BarishalNews24
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

আদালতের স্থিতিবস্থতা অমান্য করে গাছ কেটে রাস্তা নির্মাণঃ মেয়রসহ ৪জনকে লিগ্যাল নোটিশ

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১
  • ১৫০ বার দেখা হয়েছে

মুঃ মনিরুজ্জামান মুনির,নলছিটি:: ঝালকাঠির নলছিটিতে আদালতের স্থিতিবস্থার নির্দেশ অমান্য করে কবরস্থানের দেয়াল ঘেষে ও রাস্তার দুই পার্শ্বে রোপিত গাছ কেটে রাস্তা নির্মাণ কাজ করায় মেয়রসহ চার জনকে লিগ্যাল নোটিশ করা হয়েছে। গত ১০ জুলাই নলছিটি পৌর এলাকার অনুরাগ গ্রামের মুনসুর আলীর পুত্র মোঃ নওশের আলী রসুলের(কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী) পক্ষে ঝালকাঠি জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এ্যাডভোকেট মোঃ নাসিমুল হাসান ওই নোটিশ পাঠিয়েছেন।

জানা গেছে, নওশের আলী জমি বন্টনের প্রতিকারে ঝালকাঠি সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে দেওয়ানি ২৮৭/২০ মোকদ্দমা আনয়ন করলে আদালত গত ৪/২/২১ তারিখে জেএল-১২১,অনুরাগ মৌজার এসএ খতিয়ান ৩১৬ ও ২৯৩ এর ২২৩,২২৪ ও ২১৪ দাগের জমিতে স্থিতিবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেয়। উক্ত দাগের মধ্য দিয়ে ব্যক্তি মালিকানা জমিতে নলছিটি পৌরসভার পক্ষ থেকে আরসিসি রাস্তা নির্মাণ কাজ চলছে।

এছাড়াও ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির উপর দিয়ে নলছিটি পৌরসভার অনুরাগ বাজার পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ করায় ২০০৫ সনের ৫ নভেম্বর তৎকালীন পৌরসভার চেয়ারম্যান মাসুদ খান রাস্তার দুই পার্শ্বে ৫০০ ফুট জায়গায় নওশের আলীকে গাছ লাগানোর লিখত অনুমতি দেয়। বিগত ১৫/১৬ বছরে নওশের আলীর লাগানো গাছ মোটামুটি বড় হয়ে ওঠে। বর্তমানে সরকারের লকডাউনের মধ্যে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করে ঠিকাদার মোঃ আকতার হোসেন লোকজন নিয়ে রাস্তা কাজ শুরু করে। আদালতের স্থিতিবস্থা অবহিত করা হলেও ঠিকাদার লোকজন নিয়ে নওশের আলীর পারিবারিক কবরস্থানের জমির উপর দিয়ে রাস্তার কাজ জোরপূর্বক চালিয়ে যাচ্ছে।

এছাড়াও রাস্তার দুই পার্শ্বে লাগানো নওশের আলীসহ গ্রামের অনেকের লাগানো গাছ কেটে ফেলেছে। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে নওশের আলী জানান, তিনি প্রাথমিক পর্যায়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন এরপর আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়েরসহ ক্ষতিপূরণ মামলা দায়ের করা হবে। এ ব্যাপারে ঠিকাদার মোঃ আকতার হোসেন বলেন, তিনি কোন গাছ কাটেননি।

এলাকার কাউন্সিলর লোকজন নিয়ে গাছ কেটেছে। নলছিটি পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল ওয়াহেদ কবির খান বলেন, আদালতের স্থিতিবস্থার বিষয়টি তিনি জানেন না। এছাড়াও তিনি ঠিকাদার বা অন্য কাউকে রাস্তার দুই পার্শ্বের গাছ কাটতে নির্দেশ দেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24
Design and Developed by Sarjan Faraby