1. gazia229@gmail.com : admin :
ইউএনওর বাসায় হামলা: বিব্রত আ. লীগ - BarishalNews24
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন

ইউএনওর বাসায় হামলা: বিব্রত আ. লীগ

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট, ২০২১
  • ১৯২ বার দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক:: দলের মধ্যে তো বিভিন্ন রকমের বিষয়ই থাকেই। সেটা তো নিজেরা আমরা ফয়সালা করতে পারি। সেখানে আবার প্রশাসনের সঙ্গে কেন যে এমন ভুল বোঝাবুঝি তৈরি হলো। আমরা সাংগঠনিক ভাবে কাজ করছি, আশা করছি নরমাল হয়ে যাবে: আওয়ামী লীগের দলের বরিশাল বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন।

 

বরিশালে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসায় ক্ষমতাসীন দল সমর্থকদের হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় বিব্রত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।
নেতাদের দাবি এই ঘটনাটি ঘটেছে ভুল বোঝাবুঝি থেকে। শিগগিরই পরিস্থিতি ঠিক হয়ে যাবে।

বুধবার রাতে ব্যানার অপসারণ নিয়ে ইউএনও মু‌নিবুর রহমানের সঙ্গে সি‌টি করপোরেশনের প্রশাস‌নিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসের কথা-কাটাকা‌টি হয়।
প্রশাস‌নিক কর্মকর্তার সঙ্গে থাকা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে বিবাদে জ‌ড়িয়ে পড়েন।

আনসার‌ সদস্যদের সঙ্গে হাতাহা‌তি শুরু হলে আওয়ামী লী‌গ, যুবলীগ এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ইউএনওর বাসায় হামলার চেষ্টা চালায়। আনসার সদস্যরা গু‌লি ছুড়লে প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসসহ চারজন আহত হন।

সংঘর্ষের পরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে পু‌লিশ অবস্থান নিলে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা আবার ইউএনওর বাসভবনে হামলার চেষ্টা করে। এ সময় পু‌লিশ ও সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে।

এই ঘটনাটি প্রশাসনের কর্মকর্তাদেরকে ক্ষুব্ধ করে তুলেছে। থমথমে পরিস্থিতিতে বরিশালে বিজিবি মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।
ঘটনাটি নিয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায়েও আলোচনা হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেছেন। বলেছেন, অপকর্ম করলে আওয়ামী লীগ নিজ দলের নেতা-কর্মীদেরকেও ছাড় দেয় না।

আওয়ামী লীগের দলের বরিশাল বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন এ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা মনিটর করছি দলের পক্ষ থেকে। কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গেও কথা বলছি। আমাদের এই মুহূর্তে অগ্রাধিকার, যারা অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে আহত হয়েছেন তাদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা।

‘তারপর যাতে আর কোনো সমস্যা না হয় সে জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে বলা হয়েছে। আমি নিজে কথা বলেছি বরিশাল জেলা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে। সবাই সতর্ক আছেন। খোঁজ খবর রাখছি।’

সংঘর্ষের ওই ঘটনার পর বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সাজ্জাদ সেরনিয়াবাত বলেন, ‘ইউএনও মু‌নিবুর রহমান নিজে বন্দুক নিয়ে গু‌লি ছুঁড়েছেন। সি‌টি করপোরেশনের লোকজন ব্যানার খুলতে আসলে এ আচরণ করেন তিনি। এতে করপোরেশনের কর্মকর্তা স্বপনসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়। পরে মেয়র মহোদয় এখানে এসে নিজের প‌রিচয় দিলে তার উপরও গু‌লি ছোঁড়েন ইউএনও।’

তবে ইউএনও মু‌নিবুর রহমান বলেন, ‘১০ থেকে ১৫টি মোটরসাইকেলে করে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক রা‌জিব আমার কম্পাউন্ডে ঢুকে ব্যানার ছিঁড়তে থাকে। তাদেরকে নিষেধ করা হলে তারা আমাকে ঘিরে ধরে। এ সময় আমার সেফ‌টির জন্য আনসার সদস্যরা যেটা প্রয়োজন সেটা করেছে।’

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে দু‌টি মামলা করা হয়। এর একটি করেছেন ইউএনও মু‌নিবুর রহমান। আরেকটি করা হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।
দুই মামলায় ৩০ থেকে ৪০ জনের নামসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকশ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এরই মধ্যে আটক করা হয়েছে ১৩ আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে। এ অবস্থার মধ্যেই বরিশাল নগরীর আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন‌্য ১০ প্লাটুন বি‌জি‌বি ও ১০ জন নির্বাহী ম‌্যা‌জি‌স্ট্রেট মোতায়েন করা হচ্ছে।

সংঘর্ষের ঠিক একদিন আগে বরিশালে আওয়ামী লীগের রাজনীতি অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা চলছে জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন দলের নেতারাই।

নগরীর কালীবাড়ি রোডে মেয়রের বাসভবনে মঙ্গলবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি একে এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘বরিশালের স্থানীয় রাজনীতিকে অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে কেউ কেউ। তারা কারা তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি।’‘সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুকের মধ্যে রাগ অভিমানের সুযোগ নিচ্ছে তৃতীয় পক্ষ’- যোগ করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি।
দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সমস্যা থাকলেও প্রশাসনের সঙ্গে কেন এ পরিস্থিতি তা বুঝতে না পারার কথাও জানান আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন।

তিনি বলেন, ‘দলের মধ্যে তো বিভিন্ন রকমের বিষয়ই থাকেই। সেটা তো নিজেরা আমরা ফয়সালা করতে পারি। সেখানে আবার প্রশাসনের সঙ্গে কেন যে এমন ভুল বোঝাবুঝি তৈরি হলো। আমরা সাংগঠনিকভাবে কাজ করছি, আশা করছি নরমাল হয়ে যাবে।’

নেতাকর্মীদের মধ্যে বিবাদ মীমাংসা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নেতাকর্মীদের মনে হয়ত কষ্ট আসে। আমরা চেষ্টা করছি যাতে তাড়তাড়ি সব ঠিক হয়ে যায়। যেহেতু সরকারে আওয়ামী লীগ দলের পক্ষ থেকে কোনোভাবেই আইন শৃঙ্খলার অবনতির মতো ঘটনা ঘটুক এটা আমরা চাইব না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24