1. gazia229@gmail.com : admin :
পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা: বোট ক্লাবের ভিডিওতে যা আছে - BarishalNews24
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১০:২০ পূর্বাহ্ন

পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা: বোট ক্লাবের ভিডিওতে যা আছে

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১
  • ১২৫ বার দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক::
ঢাকা বোট ক্লাবে ঢালিউডের চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার ঘটনায় ক্লাবের ভেতরে মোবাইল ফোনে ধারণকৃত ১৬ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফুটেজ গণমাধ্যমের হাতে এসেছে।

জানা গেছে, সেখানে থাকা এক ব্যক্তি ১৬ সেকেন্ডে এই ভিডিওটি মোবাইল ফোনে ধারণ করেছেন।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ঢাকা বোট ক্লাবের ভেতরের চিত্র। ভিডিওতে প্রথমেই দেখা যায়, একজন নারী হেঁটে চলে যাচ্ছেন।

এরপর সেখানে এক ব্যক্তি অস্পষ্ট ইংরেজি ভাষায় কথা বলেছেন। অপর পাশে মাতাল কণ্ঠে অন্যজন (নাসির উদ্দিন মাহমুদ) বলছেন, অমিকে (পরীমনির বন্ধু) এই রুমে আনবা না। পরক্ষণে ইংরেজিতে ওই ব্যক্তি বলছেন, ‘আই হার্ট ইউ’।

এরপরই উত্তেজিত হয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ দিয়ে যাচ্ছিলেন ওই ব্যক্তি। এ সময় তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

তবে ভিডিওতে কারও চেহারা দেখা যায়নি।

এদিকে পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে করা মামলার প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ।

উত্তরা ১ নম্বর সেক্টরের ১২ নম্বর রোডে বাসা থেকে নাসির উদ্দিন মাহমুদকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেন, এটা অমির বাসা। পরীমণির সংবাদ সম্মেলনের পর থেকে নাসির তার তিন রক্ষিতাকে নিয়ে এ বাসায় নাসির পালিয়ে ছিলেন। মাদক রাখার অভিযোগে সে তিন জনকেও আমরা গ্রেপ্তার করেছি।

তিনি বলেন, অভিযানকালে নাসিরের বাসা থেকে বিদেশি মদ ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তার বাসায় উঠতি বয়সী নারীরা এসে মদ পান করতেন বলে আমরা তথ্য পেয়েছি। তার বাসায় ডিজে পার্টির আয়োজন ছিল।

নাসির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নাসিরের বিরুদ্ধে আগেও মাদক ও নারী নির্যাতনের মামলা হয়েছে। নানা অভিযোগে তাকে উত্তরা ক্লাব থেকে বহিস্কারও করা হয়েছে বলে জেনেছি। কেউ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে আমরা সেগুলোর তদন্ত করব।

পরীমনি ক্লাবের সদস্য না হয়ে সেখানে যাওয়ার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম কমিশনার বলেন, সে (পরীমণি) স্বনামধন্য নায়িকা। তিনি ওখানে (বোট ক্লাব) যেতেই পারেন। তিনি গেলে যে তাকে ওখানে হ্যারেজ (হয়রানি) করবে সেটা ঠিক না। আসলে কী ঘটেছে তা বিস্তারিত তদন্ত করে বলতে পারব।

তিনি বলেন, এই ঘটনা নিয়ে রোববার রাতে সংবাদ সম্মেলন করেন পরীমণি। সংবাদ সম্মেলনের পরপরই আমরা অভিযানের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম, তবে যেহেতু রাতে মামলা হয়নি তাই আমরা অ্যাকশনে যাইনি। সাভার থানায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর আমরা অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করি।

হত্যাচেষ্টা ও ধর্ষণচেষ্টার মামলায় নাসিরকে সাভার থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তবে বর্তমানে মাদক উদ্ধারের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানান হারুন।

এর আগে সকালে ব্যবসায়ী নাছির মাহমুদসহ ছয়জনকে আসামি করে সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন পরীমনি। মামলায় নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে আরও ৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। এর আগে সকালে রূপনগর থানার মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ করেন পরীমনি।

সাভার থানার পরিদর্শক কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, পরীমনি নিজে বাদী হয়ে মোট ৬ জনের নামে এ মামলা করেছেন (মামলা নম্বর ৩৮)।

এদিকে পরীমনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন, গণমাধ্যমে এমন অভিযোগের পর তার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তার রাজধানীর বনানীর বাসার সামনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

সোমবার দুপুরে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম মিয়া বলেন, পরীমনি গণমাধ্যমে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানিয়েছেন। এরপর আমরা তার নিরাপত্তা জোরদার করেছি। আমাদের একটা টহল টিম সেখানে আছে, সদস্য চার জন।

রোববার (১৩ জুন) রাত সাড়ে ১০টায় তার বনানীর বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিনেত্রী অভিযোগ করেন, ঘটনার পর চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। যদিও মধ্যরাতে সংবাদ সম্মেলন শেষেই পরীর বনানীর বাসার সামনে পুলিশের অবস্থান দেখা যায়।

সংবাদ সম্মেলনে পরীমনি অভিযোগ করেন, চার দিন আগে আশুলিয়ার একটি ক্লাবে তার সঙ্গে প্রতিষ্ঠিত এক ব্যবসায়ী ক্লাবকর্তা অশোভন আচারণ করেছেন এবং শারীরিক নির্যাতন করেছেন।

এ ঘটনায় তিনি বনানী থানায় মামলা করতে গেলেও কোনো সহযোগিতা পাননি। সংবাদ সম্মেলনে নিজের সঙ্গে ঘটা ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে একাধিকবার কান্নায় ভেঙে পড়েন এই চিত্রনায়িকা।

সংবাদ সম্মেলনে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন পরীমনি। তার অভিযোগ ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য (বিনোদন ও সংস্কৃতি) নাসির উদ্দিন মাহমুদের বিরুদ্ধে। ঢাকা বোট ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য নাসির উদ্দিন একজন আবাসন ব্যবসায়ী। তিনি উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি। অভিযোগের ব্যাপারে এখন পর্যন্ত নাসির উদ্দিন মাহমুদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পরীমনি বলেন, উত্তরার বোট ক্লাবে (ঢাকা বোট ক্লাব) তার সঙ্গে ঘটনাটি ঘটে। নাসির উদ্দিন নামে একজন নেশাজাতীয় কিছু খাইয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। চার মদ্যপ ব্যক্তি তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। চড়-থাপ্পড় মারেন। গায়ে আঘাত করেন।

পরীমনি বলেন, আমি সুইসাইড করার মতো মেয়ে না। আমি যদি মরে যাই, আপনারা বুঝবেন আমাকে মেরে ফেলা হয়েছে। আমি সুইসাইড করতে পারি না। আমি সুইসাইড করব না। আমি আমার বিচার নিয়ে মরব। আমার সাথে অন্যায় করা হয়েছে। আমার সাথে অন্যায় হয়েছে, বিচার চাই। আমি আজকে মরে গেলে… আমি সুইসাইড করি নাই, সবাই জেনে রাখেন। আর আমাকে যদি কেউ মারে, আমি যদি মরে যাই; ভাইয়ারা আপনারা বিচার কইরেন, আল্লাহর কসম।

বিচার না পাওয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, চার দিন ধরে একদম সাধারণ মেয়ের মতো মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কিন্তু আমাকে কেউ সাহায্য করেনি। পরীমনি হিসেবে যখন স্ট্যাটাসটা দিলাম তখনই সবাই আসলেন।

পরীমনি বলেন, এমন ঘটনায় সাধারণ মেয়েরা প্রথমে কোথায় যায়? থানায় যায়। আমিও থানায় গিয়েছি। আমি বারবার বলেছি, ঘটনাটা যদি নিজের সঙ্গে না ঘটে তাহলে কেউ বুঝবে না।

পরীমনি আরও বলেন, সাধারণ কোনো মেয়ের হলে সে খবর হয়তো আপনাদের কাছে পৌঁছায় না। সাংবাদিকদের কাছে খবর পৌঁছানো হয় না। আমার মতো যখন কোনো মেয়েকে ভয় দেখানো হয় তখন সাধারণ মেয়ের খবর তো পাবেন না!

এর আগে রোববার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় পরীমনি ফেসবুক পেজে জানান, তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। এর প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে খোলা চিঠি পোস্ট করেন পরীমনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24
Design and Developed by Sarjan Faraby