1. gazia229@gmail.com : admin :
বরিশালে লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে বিএমপি ট্রাফিক বিভাগ - BarishalNews24
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১:৩০ অপরাহ্ন

বরিশালে লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে বিএমপি ট্রাফিক বিভাগ

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১
  • ৬২ বার দেখা হয়েছে

 জুবায়ের ইসলামঃ আজ ১৪ই এপ্রিল রোজ বুধবার সকাল ৬ টা থেকে ২১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত সারাদেশ লকডাউন ঘোষনা করেছে সরকার । লকডাউনের বিষয়টি আগাম নিশ্চিত করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। দেশের সকল জেলা ও উপজেলা এই নির্দেশনার আওতায় থাকবে। যথাযথ ভাবে লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। দেশের প্রতিটি জেলার ন্যায় বরিশালেও মহামারী করোনা প্রতিরোধ ও লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে রয়েছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ ( বিএমপি)।

বরিশাল নগরবাসীকে নিরাপদ রাখতে বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার এর নির্দেশে কাজ করছে বিএমপি’র সকল ইউনিট । এরই ধারাবাহিকতায় লকডাউন কার্যকরে পিছিয়ে নেই বিএমপি ট্রাফিক বিভাগ।বিএমপি কমিশনারের নির্দেশে উপ- পুলিশ কমিশনার (ডিসি) ট্রাফিক মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার পিপিএম সেবা এর নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছে ট্রাফিক বিভাগের প্রতিটি সদস্য। মহামারী করোনা দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি যথাযথ লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে রয়েছে ট্রাফিক বিভাগ। রোড ব্লক ব্যান্যার দিয়ে রোড ব্লক করে কঠোর অবস্থানে দ্বায়িত্ব পালন করছে ট্রাফিক সদস্যরা। আগাম ঘোষণা অনুযায়ী লকডাউন বাস্তবায়নে নগরীতে মাইকিং করে জনসচেতনতার পাশাপাশি বরিশাল থেকে সকল ধরনের যাত্রীবাহী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

এছাড়াও বরিশালে যাত্রীবাহী পরিবহন প্রবেশ ঠেকাতে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। তবে জরুরি সেবা মূলক ও আমদানি রপ্তানি কাজে নিয়োজিত পরিবহন চলাচল করতে পারবে । ডিসি ট্রাফিকের নির্দেশে শহরের মূল প্রবেশ মুখে ৩টি ও থ্রি হুইলার চলাচল নিয়ন্ত্রণে নগরীর ভিতরে ৪টি চেকপোস্ট বিদ্যমান রয়েছে। বরিশাল পটুয়াখালী মহাসড়কের হিরোনপয়েন্ট, বরিশাল ঝালকাঠি মহাসড়কের কালিজিরা ও ঢাকা বরিশাল মহাসড়কের রামপট্টি এলাকায় ট্রাফিক পুলিশের চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ করার পাশাপাশি মাইক্রো বাস, থ্রি হুইলার, সিএনজি, অটোরিকশাসহ যে কোন ধরনের গণপরিবহন নিয়ন্ত্রণে গরিয়ারপার,নথুল্লাবাদ, আমতলা মোড় ও রুপাতলীতে অভ্যান্তরিন চেকপোস্ট বসিয়ে মনিটরিং করা হচ্ছে। ঢাকায় বসবাস করা অনেক মানুষ লকডাউনের কারনে পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়ি বরিশালে রওনা করছেন । মাওয়া ফেরিঘাট পার হয়ে বাস না পেয়ে মাইক্রোবাস ও থ্রি হুইলারে চড়ে বরিশালে এসেছেন।

করোনা প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে কিছু কিছু গণপরিবহন যাত্রী বহন করায় ইতিপূর্বে ৫টি পরিবহন আটক ও শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ট্রাফিক পুলিশ। এ বিষয় নগরীর এক বাসিন্দা বলেন,,করোনা ভাইরাসের প্রকোপ যেভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে তাতে লকডাউনের কোন বিকল্প নেই। সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। অপরদিকে লকডাউনের কথা শুনে মানুষের মধ্যে একটা অস্বাভাবিক আচরণ লক্ষ করা যাচ্ছে। ঈদের ছুটি মনে করে কেউ কেউ স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করেই কেনাকাটার ধুম ফেলেছে আবার কেউ কেউ কর্ম স্থান ছেড়ে গ্রামে পাড়ি দিয়েছে। মহামারীর সময় এক স্থান থেকে অন্য স্থানে এভাবে মানুষের ভ্রমণ করা ঠিক নয় এতে করোনা সকলের মাঝে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

একজন থেকে আরেকজন আক্রান্ত হয়ে সারাদেশের মানুষের জীবন ঝুঁকিতে ফেলে দিতে পারে। ঘোষণা অনুযায়ী ১৪-২১ এপ্রিল পর্যন্ত মানুষকে ঘরে রাখতে এবং কঠোর অবস্থানে থেকে লকডাউন যথাযথ বাস্তবায়ন করতে আমরা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ বিষয় ডিসি ট্রাফিক মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার পিপিএম সেবা বলেন,,,মহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও লকডাউন বাস্তবায়নে সরকারি নির্দেশে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বরিশালবাসীকে নিরাপদ রাখতে আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ করেছি, বরিশালে প্রবেশ ঠেকাতে ৭ টি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। পাশাপাশি জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আমরা ১৩ এপ্রিল নগরীতে মাইকিং করে প্রচার প্রচারণা করেছি ।

এছাড়াও লকডাউন বাস্তবায়নে আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি। সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী আজ ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সবাইকে লকডাউন মেনে চলতে হবে। লকডাউনকালীন সময় জরুরি প্রয়োজন না হলে অযথা বাহিরে ঘোরাঘুরি করা যাবে না। সকলের প্রতি অনুরোধ সবাই সরকারি নির্দেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লকডাউন কার্যকরে আমাদের সহযোগীতা করুন। লকডাউন অমান্য করে আমাদের আইন প্রয়োগ করতে আমাদের বাধ্য করবেন না।স্বাস্থ্যবিধি পালন করে সবাই ভালো থাকুন, নিরাপদ থাকুন দেশকে করোনা মুক্ত রাখুন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24
Design and Developed by Sarjan Faraby