1. gazia229@gmail.com : admin :
সাহেবের হাটে জমি দখলের চেষ্টায় মেম্বারের উপর কারঅ বাহিনীর হামলা ! - BarishalNews24
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৪০ অপরাহ্ন

সাহেবের হাটে জমি দখলের চেষ্টায় মেম্বারের উপর কারঅ বাহিনীর হামলা !

প্রতিবেদক:
  • প্রকাশকাল: শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১১৩ বার দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরিশাল সদর উপজেলার সাহেবের হাট থানাধীন সাহেবের হাট বাজারের পাদুকা বাবসায়ী ও টুঙ্গিবাড়িয়া ইউনিয়নের বিশারদ ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার আজিজুর রহমান কলমের (৫০) উপর হামলা করেছে সন্ত্রাসীরা। হামলার শিকার ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানান, সাহেবের হাট বাজারে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে গত ১৫/১৬ বছর যাবৎ পাদুকা ব্যাবসা করে আসছেন ইউপি সদস্য কলম।

করোনাকালীন সময়ে ব্যাবসায় লোকসান হওয়ায় দোকান ভাড়া বেশি হওয়ায় নিজেই জমি ক্রয় করার স্বিদ্বান্ত নেন। পরবর্তিতে গতমাসে জমির মালিক অরুন হাওলাদারের কাছ থেকে আদা (০০.৫০) শতাংশ জমি ক্রয় করেন ইউপি সদস্য আজিজুর রহমান কলম।

পরবর্তিতে ভাড়াকৃত দোকান মালিক শহিদুল ইসলাম কালা ওই ক্রয়কৃত জমির মালিকানা দাবী করেন ও পাদুকা ব্যাবসায়ীকে নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখান। আহতের পরিবার আরো জানান, স্থানীয় অভিযুক্ত কালা ওই জমি নিজের দাবী করে ইউপি সদস্য (মেম্বার) কলমের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পরেন। পরবর্তীতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে বাসায় ফেরার পথে কলম মেম্বারের উপর কালার নেতৃত্বে একাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী অতকৃত হামলা চালায়।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্বার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, হামলায় তিনি মারাত্বক জখম হয়েছেন।

এদিকে আহত ইউপি সদস্য কলম তিনি জানান, আমি ১৫/২০ বছর যাবৎ বাজারে ব্যবসা করি। গত ৩বছর যাবৎ সাহবের হাট বাজারে ওই দোকানটি ভাড়া নিয়ে পাদুকা ব্যাবসা চালিয়ে আসছি। তখন শুনতে পেরেছি আমার ভাড়াকৃত দোকানের জমির মূল মালিক বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী অরুন হাওলাদার। পরবর্তিতে অরুন হাওলাদারের জমি থেকে ওই আধা শতাংশ ক্রয় করি। কিন্তু ভূমিদস্যু কালা দোকান ও জমি ছেড়ে আমাকে চলে যাওয়ার জন্য নানা ধরনে হুমকি দিয়ে আসছিলো। এক পর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে বাসায় ফেরার পথে সন্ত্রাসী বাহীনি সাথে নিয়ে আমার উপরে হামলা চালায়।

তিনি আরো বলেন, শহিদুল ইসলাম কালার বোনের বাসায় ভাড়া থাকেন বন্দর থানা পুলিশের ওসি (অপারেশন) আজিজুল হক। সেই সুবাদে অভিযুক্ত শহিদুলের পক্ষ নিয়ে আমাকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করেন। আমি বিচার না পেয়ে বিষয়টি আমি প্রশাসনের উর্দ্বতন কর্মকর্তাকে অবহিত করি। পরবর্তিতে রাতে বন্দর থানা পুলিশকে ভুল বুঝিয়ে আমার দোকানে তালা জুলিয়ে দেয় এবং উল্টো আমাকে দোকান ছাড়ার জন্য নানান ধরনের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। এ বিষয়ে আমি আগামীকাল বরিশাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

 

অপরদিকে এ বিষয়ে বন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত (ওসি) কর্মকর্তা মো: আসাদুজ্জামান বলেন, ওই জমি ও দোকান নিয়ে চলমান ঝামেলার বিষয়টি আমি শুনেছি। এবিষয় মো: শহিদুল ইষলাম কালা থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেছেন। জিডির বিষয় আমাদের তদন্ত চলমান রয়েছে। তবে, জমি নিয়ে ঝামেলার বিষয়ে বিজ্ঞ আদালত বা স্থানীয় চেয়ারম্যানের শালিশ বিচারের মাধ্যমে ঝামেলাটি নিষ্পত্তি করতে পারবেন। এ বিষয় আইন তার নিজ গতিতে চলবে পুলিশ তাতে কোন অতিরিক্ত হস্তক্ষেপ করতে পারবেনা।

এ বিষয়ে বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী অরুন হাওলাদার জানান, আমার পৈত্তিক সম্পত্তি থেকে ও জমিটি মেম্বারের কাছে বিক্রি করি। এ নিয়ে কালাম জমিটি তার দাবী করে দখল দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। শহিদুল ইসলাম কালা’র বাজারের পিছনে ছাড়া সামনে কোন জমি নেই। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© 2021 - All rights Reserved - BarishalNews24
Bengali Bengali English English