ঢাকাসোমবার , ২১ আগস্ট ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি
  6. কৃষি
  7. খেলাধুলা
  8. গণমাধ্যম
  9. চাকরির খবর
  10. জনদুর্ভোগ
  11. জাতীয়
  12. জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০২৪
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. ফিচার
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যুক্তরাজ্য ও সৌদি প্রবাসীদের স্মার্ট এনআইডি দিতে চায় ইসি

নিজস্ব প্রতিবেদন
আগস্ট ২১, ২০২৩ ৩:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ডেস্ক রিপোর্ট: সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর এবার যুক্তরাজ্য ও সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার তালিকাভুক্ত করে স্মার্ট এনআইডি দিতে চায় নির্বাচন কমিশন। সোমবার (২১ আগস্ট) কমিশন সভা শেষে ইসির এ সিদ্ধান্তের কথা জানান সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। পরে নির্বাচন ভবনে ব্রিফিংয়ে ইসি সচিব বলেন, বাংলাদেশি প্রবাসী নাগরিকদের এনআইডি করার যে পাইলট প্রকল্প সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলছে, তার অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। পরবর্তীতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও দুটি দেশ যুক্তরাজ্য ও সৌদি আরবে কাজ শুরুর অনুরোধ জানিয়েছে। সেগুলো কাজের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

ভোটের আগে যুক্তরাজ্য ও সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের হাতে এনআইডি সেবা দেওয়ার আশা প্রকাশ করে সচিব বলেন, আমরা এটা শুরু করেছি। কবে পাবে তা দুই দেশে টিম না যাওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না। তবে আশা করি, আমরা জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে করতে পারবো।

বাংলায় সিইসি ও ইসির পারিতোষিক ও বিশেষাধিকা) খসড়া অনুমোদন:
নির্বাচন কমিশন সচিব মো. জাহাংগীর আলম জানান, সোমবারের কমিশন সভায় ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার (পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার) আইন’ এর খসড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তিনি জানান, ১৯৮৩ সালের অর্ডিন্যান্স বাংলায় অনুবাদ করে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। কারণ, মহামান্য হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্ট, সরকারি নির্দেশনার আলোকে মামলার রায়ে সামরিক শাসনামলের অর্ডিন্যান্স ও আইনগুলো বাংলায় করা হবে। এর ধারাবাহিকতায় সোমবার সভায় বর্তমান ইসি ২০২৩ সালের এ খসড়া অনুমোদিত হয়েছে। এখন ইসি সচিবালয় তা আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে। সেখানে ভেটিংয়ের পর মন্ত্রিসভা বৈঠক হয়ে সংসদে যাবে। এ খসড়ায় কোনও পরিবর্তন হয়নি, শুধু বাংলায় হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব জানান, সিইসি ও ইসির বিদ্যমান সুবিধাগুলো একই থাকছে। সিইসি মহোদয় আপিল বিভাগের একজন বিচারপতি যে সুযোগ সুবিধা পান সেটাই পাবেন; আর মাননীয় কমিশনার মহোদয়রা হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতির সমান সুযোগসুবিধা পাবেন।

এ কমিশন সভায় ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ নীতিমালা, প্যানেল প্রস্তুত নির্দেশিকা, ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ সূচি ও ভোটের সময় মাঠ কর্মকর্তাদের আপ্যায়ন ভাতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

ব্রিফিংয়ের সময় ইসির অতিক্তি সচিব অশোক কুমার দেবনাথ ও এনআইডি উইং মহাপরিচালক একেএম হুমায়ুন কবীর উপস্থিত ছিলেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।